ঢাকা, সোমবার, ২৪শে জুন ২০১৯ , ১০ই আষাঢ় ১৪২৬, সন্ধ্যা ৭:৩৯

ফ্রান্সের একজন মুসলিম ছাত্রীকে লম্বা স্কার্ট পরায় স্কুল থেকে বহিষ্কার

প্যারিস: ফ্রান্সের একজন মুসলিম ছাত্রীকে লম্বা স্কার্ট পরায় স্কুল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। এ ঘটনায় দেশটির মুসলিম সমাজে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। ফ্রান্সের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় চার্লভিল-মেজিয়েজ শহরের একটি স্কুলের প্রধান শিক্ষক মুসলিম ছাত্রী সারাহ’কে ক্লাসে ঢুকতে দেননি। কালো লম্বা স্কার্ট পরিধান করলে তাতে ‘লক্ষ্যণীয়ভাবে’ একটি নির্দিষ্ট ধর্মের প্রতি আনুগত্য প্রকাশ পাবে বলে ওই প্রধান শিক্ষক তাকে ক্লাসে ঢুকতে দেননি। ফ্রান্সের তথাকথিত সেক্যুলার আইনে স্কুল-কলেজে ধর্মীয় প্রতীক ব্যবহার করা নিষিদ্ধ। শহরটির শিক্ষা কর্মকর্তা প্যাট্রিস ডুটোট দাবি করেছেন, ছাত্রীটিকে বহিষ্কার করা হয়নি বরং তাকে এমন পোশাক পরে আসতে বলা হয়েছে যাতে কোনো ধর্মীয় লক্ষণ প্রকাশ না পায়। কিন্তু পরবর্তীতে তার বাবা তাকে আর স্কুলে আসতে দেননি। ১৫ বছর বয়সি ছাত্রী সারাহ স্থানীয় দৈনিক লারদানেইস’কে জানিয়েছে, তার স্কার্টটিতে বিশেষ কোনো প্রতীক ফুটে ওঠেনি। কোনো ধর্মীয় চিহ্ণ লক্ষণীয়ভাবে ফুটে ওঠার তো প্রশ্নই ওঠে না। ফ্রান্সের ইসলাম-আতঙ্ক বিরোধী কমিটি জানিয়েছে, গত বছর দেশটির ১৩০ জন শিক্ষার্থীকে কথিত ধর্মীয় পোশাক পরিধানের জন্য স্কুল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top